মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বা সিইও হলেন একটি প্রতিষ্ঠানের সর্বোচ্চ প্রশাসনিক পদ। প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা ও প্রশাসনের সমস্ত কার্যকলাপ প্রধান নির্বাহীর নেতৃত্বে পরিচালিত হয়। একজন সিইও সাধারণত পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং সকল কাজের জন্য পরিচালনা পর্ষদের কাছেই দায়বদ্ধ থাকেন। সাধারণত বৃটিশ ইংরেজিতে সিইও শব্দটি ব্যবস্থাপনা পরিচালক[১] কিংবা প্রধান নির্বাহীর সমার্থক হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

দায়িত্ব

সাধারণত একজন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কিংবা ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব কি হবে তা পরিচালনা পর্ষদ অথবা তৎসম কোন কর্তৃপক্ষ নির্ধারন করে থাকে। তবে প্রতিষ্ঠানের কর্মকান্ডের প্রকারভেদ ও আয়তন অনুযায়ী প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব সীমিত থেকে ব্যাপক পরিসরের হতে পারে।

সিইও হিসেবে একজন ব্যক্তির প্রধান দায়িত্ব হল প্রতিষ্ঠানকে নেতৃত্ব প্রদান করা, সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা, দিক নির্দেশনা দেওয়া এবং সমগ্র কর্মকানদের ব্যবস্থাপনা করা। তিনি প্রতিষ্ঠানের মালিক, কর্মী ও অন্যান্য নির্ভরশীল ব্যক্তিদের মধ্যে একটি যোগসূত্র হিসেবে কাজ করেন। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের জন্য দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ, পরিকল্পনা প্রণয়ন, উচ্চ পর্যায়ের সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বিভিন্ন কাজে পরিচালনা পর্ষদকে উপদেশ দিয়ে থাকেন।

পেশার বৈশিষ্ট্য

এমআইটির গবেষক ক্যারোলা ফ্রিডম্যানের মতে ১৯৩৬ সালের পর থেকে ২০০০ সালের শেষ অব্দি এমবিএ গ্রাজুয়েটদের সিইও পদে নিয়োগ পাবার প্রবণতা বেড়ে গেছে। ষাঁটের দশকে যেখানে মাত্র ১০% প্রধান নির্বাহী এমবিএ ছিলেন, এই শতকের শেষের দিকে এসে প্রায় ৫০% প্রধান নির্বাহীই এমবিএ। প্রথম দিকে এই পদে আসীন ব্যক্তিরা সাধারণত কোন কারিগরি দিক দিয়ে বিশেষজ্ঞ কিংবা বিজ্ঞান, প্রযুক্তি কিংবা প্রকৌশল ডিগ্রিধারী ছিলেন।

ভৈরব পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদটি বর্তমানে শূন্য রয়েছে। অত্র পৌরসভাটি প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা। তার গুরুত্ব অনেক।

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter